আয়াসোফিয়া আমাদের সভ্যতার পুনর্জাগরণের প্রতীক : এরদোগান


তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান বলেছেন, আয়াসোফিয়া আমাদের সভ্যতার পুনর্জাগরণের প্রতীক। ঐতাইহাসিক আয়াসোফিয়াকে পুনরায় মসজিদে রূপান্তরিত করার বর্ষপূর্তিতে এক টুইট বার্তায় তিনি এ কথা বলেন।

এরদোগান আরো বলেন, ”প্রশংসা ঐ আল্লাহর যিনি আমাদের পথ দেখিয়েছেন। আমি আশা করি যে ইবাদত, নামাজ এবং পবিত্র কোরআনের আহ্বানের আওয়াজ সময়ের শেষ অবধি মহান এই মসজিদ থেকে হারিয়ে যাবে না।” ২০২০ সালের ২৪ জুলাই আনুষ্ঠানিকভাবে জুমআর নামাজের মাধ্যমে আয়া সোফিয়াকে পুনরায় মসজিদে রূপান্তর করা হয়। ২০২০ সালের ১০ জুলাই তুরস্কের শীর্ষ আদালত আদালত ১৯৩৪ সালে জারিকৃত ফরমান বাতিল ঘোষণা করে আয়াসোফিয়াকে মসজিদে রূপান্তরের পক্ষে রায় দেয়।

এই রায়ে ১৯৩৪ সালের ক্ষমতাসীন তুর্কী সরকারের বিতর্কিত ফরমান (আয়াসোফিয়াকে মসজিদ থেকে জাদুঘরে রূপান্তরিত করণ) বাতিল বলে গণ্য করা হয়। বিশ্বের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ঐতিহাসিক ও সাংস্কৃতিক ঐতিহ্যবাহী আয়াসোফিয়া ষষ্ঠ শতাব্দীতে বাইজেন্টাইন সাম্রাজ্যের রাজত্বকালে নির্মিত হয়েছিল। গ্রীক অর্থোডক্স চার্চের মূলকেন্দ্র হিসাবে এই স্থাপনাটি ব্যবহৃত হয়েছিল। এবং সেখান থেকেই মুসলমানদের বিরুদ্ধে নানান ষড়যন্ত্র ও কূটচাল চালাত ততকালীন বাইজেন্টাইনরা।

১৪৫৩ সালে ইস্তাম্বুলে উসমানীয়দের বিজয়ের মাধ্যমে এটি একটি রাজকীয় মসজিদে রূপান্তরিত হয়েছিল। ১৯৩৫ সালে কামাল পাশার শাসনকালে এই মসজিদটিকে যাদুঘরে রূপান্তরিত করা হয়।

আরো পড়ুনঃ

যেভাবে ব্যর্থ হয়েছিল তুরস্কের সামরিক অভ্যুত্থান

তুর্কি ও কাতারের কৌশলগত সম্পর্কের নেপথ্যে

একজন ইহুদির দালালের গল্প শুনুন!!

হামাস প্রধান ঈসমাইল হানিয়ার কাধে শহিদ ইব্রাহীমের লাশ!

No comments

Theme images by PLAINVIEW. Powered by Blogger.