আমিরাত-ইসরাইল চুক্তিতে মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশ ফুসে উঠেছে

 ইসরাইলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাতের সম্পর্ক স্বাভাবিক করার সিদ্ধান্তের পর, অশান্ত পুরো মধ্যপ্রাচ্য। আমিরাতের বিতর্কিত ওই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে আবুধাবিতে নিজেদের দূতাবাস বন্ধ করেছে তুরস্ক। অন্যদিকে কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ইরান বলেছে, ফিলিস্তিনসহ গোটা মুসলিম উম্মাহ'র সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে আমিরাত। এদিকে দেশটির সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে শুক্রবার মসজিদুল আকসার সামনে বিক্ষোভ করেছেন বিক্ষুব্ধরা।

ক্ষোভে ফুসছে ফিলিস্তিনসহ গোটা মধ্যপ্রাচ্য। অবৈধভাবে ফিলিস্তিনিদের জমি দখলকারী ইসরাইলের সঙ্গে সংযুক্ত আরব আমিরাতের চুক্তির পর, শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে জেরুজালেমের মসজিদুল আকসার সামনে জড়ো হন বহু মানুষ। ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন করায় তারা আবার আমিরাতের ব্যাপক সমালোচনা করেন। এসময় আন্দোলনকারীরা আমিরাতের ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মেদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের ছবিতে আগুন ধরিয়ে দেন। সেইসঙ্গে ইসরাইল এবং যুক্তরাষ্ট্রবিরোধী স্লোগান দেন বিক্ষুব্ধরা।

তারা বলছেন, আমিরাত যা করেছে, তা ফিলিস্তিনের বিরুদ্ধে বড় অপরাধ। সেইসঙ্গে এটি আমাদের জন্য বার্তা যে, আমিরাত আর আমাদের সঙ্গে নেই।

অন্যজন বলছেন, এ সিদ্ধান্ত যদি প্রত্যাহার করা না হয়, তাহলে অবশ্যই আমিরাতকে একঘরে করতে হবে। সেইসঙ্গে অবশ্যই ফিলিস্তিনিদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে।

ইসরাইলের সঙ্গে সম্পর্কের ইস্যুতে, আরব আমিরাতের সিদ্ধান্ত কেবল সাধারণ মানুষের প্রতিবাদেই থেমে নেই। উত্তেজনার ছড়িয়েছে মধ্যপ্রাচ্যের রাজনৈতিক অঙ্গনেও। কড়া প্রতিক্রিয়া জানিয়ে ইরান বলেছে, ফিলিস্তিনসহ গোটা মুসলিম উম্মাহ'র সাথে বিশ্বাসঘাতকতা করেছে আমিরাত। আবুধাবির সিদ্ধান্তকে নির্বুদ্ধিতার পরিচয় হিসেবে আখ্যা দিয়েছে তেহরান।

এ বিষয়ে ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জাবেদ জারিফ বলেন, আসলে আমেরিকা ফিলিস্তিন সঙ্কটের বাস্তবতাই বুঝতে পারছে না। আমিরাত এবং ইসরাইলের মধ্যে একটি চুক্তি করে তারা কেবল মনগড়া নাটক মঞ্চস্থ করেছে।

অন্যদিকে আমিরাতের বিতর্কিত সিদ্ধান্তের পর আবুধাবিতে নিজেদের দূতাবাস বন্ধ করেছে তুরস্ক। এছাড়াও দেশটির সঙ্গে সম্পর্কের বিষয়ে পুনর্বিবেচনা করা হবে বলেও সাংবাদিকদের জানিয়েছেন তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইপ এরদোয়ান।

রিসেপ তাইপ এরদোয়ান জানিয়েছেন, আমিরাতের এই একটি মাত্র পদক্ষেপই ফিলিস্তিনকে গ্রাস করতে পারবে না। আবুধাবিতে আমাদের দূতাবাস বন্ধ এবং তাদের সঙ্গে কূটনৈতিক সম্পর্ক স্থগিত করার মতো সিদ্ধান্তের মাধ্যমে বোঝাতে চাই, আমরা ফিলিস্তিনিদের সাথেই আছি।

এদিকে অবৈধভাবে ফিলিস্তিনিদের ভূমি দখল বন্ধ করতে ইসরাইলের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে চীন। সেইসঙ্গে ফিলিস্তিন সঙ্কট সমাধানে সব পক্ষকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছে দেশটি।

No comments

Theme images by PLAINVIEW. Powered by Blogger.