ফিলিস্তিনে আরব আমিরাতের হামলা!

ইদি (ইলি) কোহেন! একজন লেবানীজ বংশোদ্ভুত ইসরাইলী ইহুদী। ইসরাইলের একজন প্রসিদ্ধ শিক্ষাবিদ, লেখক এবং রাজনীতি বিশ্লেষক। টুইটারে ৭০ হাজারেরও উপরে তার ফলোয়ার আছে, যাদের বড় একটি সংখ্যা আরব। আরবীতে লেখেন সাধারণত। আরবী ভাষী হওয়ার কারণে ইসলামের উপর পড়াশোনা আছে বলে মনে হয়। একজন কট্টর জায়োনিষ্ট হওয়া সত্ত্বেও অনেক সাহসী মন্তব্য করেন বিভিন্ন সময়ে। কিছু দিন ধরে টুইটারে তার সাথে দুবাইয়ের সাবেক পুলিশ প্রধান দাহী খালফানের পাল্টাপাল্টি টুইট-রিটুইট চলছে। নিচের ছবিটি তার গতকালের একটি টুইট। এখানে তিনি দাবী করেছেন:

"গত ৩ সপ্তাহ আগে আরব আমিরাতের বিমানসেনা ইসরাইলী সেনাদের সাথে মিলে গাজায় হামলায় অংশগ্রহন করেছে।"

এটা দাহী খালফান অস্বীকার করতে পারবেনা বলে তিনি চ্যালেন্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন। ইসরাইলীদের সাথে আমিরাতের দহরম মহরম নতুন কিছু নয়। এর আগে তুরষ্ককে চ্যালেন্জ জানাতে গ্রীসে ইসরাইলের সাথে যৌথ সামরাক মহড়ায় অংশগ্রহন করেছে। আমিরাতের সেনাবাহিনীকে ইসরাইলী কমান্ডোরা ট্রেনিং দেয় বলে বহু আগেই খবরে এসেছে। তারা মুসলমানদের মালিকানাধীন কুদসের ভুমি ক্রয় করে সেগুলো ইহুদীদের হাতে বিক্রি করছে বলে ফিলিস্তিনী সংগঠনগুলো কিছু দিন আগেও দাবী করেছে। গত মাসে আমিরাতের "আল আরাবিয়া চ্যানেল" ৪৮ এ ফিলিস্তীনে ইহুদী দখলদারিত্বের উপর একটি ডকুমেন্টারী সম্প্রচার করে। সেখানে খুব স্পষ্টভাবে দেখানো হয় যে, ইহুদীরা প্রচুর নিগ্রহের শিকার হওয়ার পর অবশেষে তাদের পূর্বপুরুষদের ভূমিতে প্রত্যাবর্তন করতে পেরেছে। আরবরাই মূলতঃ দখলদার। হিংস্র ফিলিস্তীনীদের হাতে অসহায় ইহুদী মুহাজিররা বহু জুলুমের শিকার হয়েছে। আমিরাতী মিডিয়ায় রাখঢাক না রেখেই এখন বলা হয় যে, 'ইহুদীরা আমাদের চাচার বংশধর। এদের সাথে আমাদের কোন শত্রুতা নেই। আরবরা এতদিন ভুল পলিসির উপর ছিল। এগুলো নতুন কিছু নয়। কিন্তু, ইহুদীদের সাথে মিলে অবরোদ্ধ ফিলিস্তীনী মুসলমানদের উপর সরাসরি হামলা করা -- এটা কল্পনা করাও কঠিন ছিল।
.
#মুহাম্মদ নোমান

No comments

Theme images by PLAINVIEW. Powered by Blogger.