Header Ads

যে কারনে এরদোগানকে ভালবাসি!

যেন খলিফা ওমর (রাঃ)-এর প্রতিচ্ছবি!.

★গত বছর আমেরিকার প্রেসিডেন্ট Donald J. Trump নির্বাচিত হওয়ার পরে গেলেন সৌদি আরবে। আরব জোটকে তালিম দিয়ে উস্কে দিল ছোট্ট মুসলিম দেশ কাতারকে অবরোধ করতে। সৌদি, মিশর, আরব আমিরাত তাই করল! আলহামদুলিল্লাহ সেই অবরোধ মুক্ত করতে ছুটে গেলেন তিনি.

★বার্মায় রোহিঙ্গা হত্যার প্রতিবাদ করলেন তিনি।পাঠালেন সাহায্য। গড়ে তুললেন বিশ্ব-জনমত।মোটামুটি শান্ত হলো হত্যাযজ্ঞ।
.
★ইসরাইলী সৈন্যদের থেকে জেরুজালেম, আল-আকসা ও ফিলিস্তিনিদের মুক্ত করতেও এগিয়ে গেলেন তিনি। Donald J. Trump চেয়েছিল পূর্ব-জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী করতে। এখানেও প্রতিবাদ করে জাতিসংঘ পর্যন্ত গরম করলেন তিনি।.

*বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামির মজলুম নেতাদের যখন অন্যায়ভাবে ফাসির দড়িতে ঝুলানো হচ্ছিল তখন পৃথবীতে একমাত্র প্রেসিডেন্ট এরদোগান হুংকার দেন।

*মিসরের মজলুম মুসলিম ব্রাদারহুডের উপর জালিম সিসি ও সৌদিগংরা যখন জুলুমের মাত্রা ছাড়িয়েছে তখনও তিনি থেমে থাকেননি মজলুমদের সাহায্যদানে।

*আফ্রিকার গরীব দেশগুলোতে সাহায্য সহযোগিতায় শীর্ষে রয়েছেন তিনি।

★ক্ষমতালোভী বাশার ও ইরান সিরিয়ায় হত্যাযজ্ঞ শুরু করে। এগিয়ে গেলেন সেই মহান নেতা। মুসলিম নেতা। যেন ওমর (রাঃ) কে দেখতে পাচ্ছি আমি।

বিশ্বের যেকোনো প্রান্তে জুলুম হলেই ছুটে যান তিনি। একাই যেন শের। হয়ত আল্লাহ এখনো সেই ক্ষমতা দেননি কিন্তু দিয়েছেন মনের বিশালতা যা মজলুমদের নিয়ে ভাবতে শিখিয়েছে,শিখিয়েছে সর্বোচ্চ সহায়তা করার।
সর্বশেষ, সৈন্য পাঠিয়ে আফরিন নিয়ন্ত্রণ নিলেন মজলুম সিরিয়ানরা যেন নিজ দেশে ফিরতে পারে।
উপরের প্রতিটা ঘটনার ভিলেন Donald J.Trump। আর নায়ক সেই মহান সুলতান, হাফিজ Recep Tayyip Erdoğan এবার তিনি সরাসরি যুক্তরাষ্ট্রকে চ্যালেঞ্জ জানালেন,"যদি কারোর বুকে সাহস থাকে, তাদেরকে আমরা মুখোমুখি হতে বলছি! পরের অভিযান মানবিজে।".

হে মালিক। তুমি আমাদেরকেও এমন নেতা দাও।

সংগৃহীত ও সম্পাদিত

No comments

Theme images by PLAINVIEW. Powered by Blogger.