Header Ads

মিশরের জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল মুসলিম ব্রাদারহুডের সদস্যদের মৃত্যুদণ্ড ও কারাদণ্ড প্রদান করায় গভীর উদ্বেগ এবং তীব্র নিন্দা।



মিশরের একটি সামরিক আদালত কর্তৃক সে দেশের জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল মুসলিম ব্রাদারহুডের ১৪ জন সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড ও ২৪ জন সদস্যকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ৫ সদস্যের প্রত্যেককে ১৫ বছর করে কারাদণ্ড প্রদানের ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করে ও তীব্র নিন্দা জানিয়ে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীর ভারপ্রাপ্ত আমীর ও সাবেক এমপি অধ্যাপক মুজিবুর রহমান আজ ১৮ ডিসেম্বর প্রদত্ত এক বিবৃতিতে বলেন, “মিশরের জনপ্রিয় রাজনৈতিক দল মুসলিম ব্রাদারহুডের ১৪ সদস্যকে মৃত্যুদণ্ড ও ২৪জন সদস্যকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ৫ জন সদস্যের প্রত্যেককে ১৫ বছর করে কারাদণ্ড প্রদানের ঘটনায় আমি গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছি এবং এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জ্ঞাপন করছি।

রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করার হীন-উদ্দেশ্যেই মিশরের স্বৈরাচারী সরকার মুসলিম ব্রাদারহুডের নেতৃবৃন্দকে অন্যায়ভাবে সাজা প্রদান করেছে। ২০১৩ সালে মিশরের অনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট সামরিক জান্তা আবদেল ফাত্তাহ আল-সিসি সরকার সে দেশের জনগণের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডঃ মুহাম্মদ মুরসিকে অন্যায়ভাবে ক্ষমতাচ্যূত করার পর থেকেই সে দেশে মুসিলম ব্রাদারহুডের নেতা-কর্মীদের উপর চরম জুলুম-নির্যাতন চালিয়ে আসছে। মিশরের জালিম সরকার গণতন্ত্রকেও ধ্বংস করেছে। জনগণের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডঃ মুহাম্মদ মুরসি বর্তমানে কারাগারে বন্দী অবস্থায় সরকারের জুলুম-নির্যাতন ভোগ করছেন। সে দেশের স্বৈরাচারী সরকার মুসলিম ব্রাদারহুডের নেতা-কর্মীদের অন্যায়ভাবে শাস্তি দিয়ে এ সংগঠনটিকে ধ্বংস করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত।
যুগে যুগে বিভিন্ন দেশে জালিম সরকার জনগণের উপর জুলুম-নির্যাতন চালিয়েছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত তারা টিকে থাকতে পারেনি। আল্লাহ জালিমদের ধ্বংস করে দিয়েছেন। বর্তমানে যে সব জালিম সরকার জনগণের উপর জুলুম-নির্যাতন চালাচ্ছে তারাও একদিন ধ্বংস হবে ইনশাআল্লাহ।
মিশরের স্বৈরাচারী সরকার কর্তৃক মুসলিম ব্রাদারহুডের নেতাদের অন্যায়ভাবে শাস্তি দিয়ে মানবাধিকার লংঘন করেছে। মিশর সরকারের মানবাধিকার লংঘনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে সোচ্চার হওয়ার জন্য আমি জাতিসংঘ এবং ওআইসিসহ সকল আন্তর্জাতিক সংস্থা ও মানবাধিকার সংগঠনের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।
মুসলিম ব্রাদারহুডের উপর অন্যায়ভাবে পরিচালিত জুলুম-নির্যাতন বন্ধ করে মিশরের নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট ডঃ মুহাম্মদ মুরসিসহ মিথ্যা মামলায় দণ্ডপ্রাপ্ত মুসলিম ব্রাদারহুডের সকল নেতা-কর্মীকে অবিলম্বে নিঃশর্তভাবে মুক্তি দেয়ার জন্য আমি মিশর সরকারের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।”

 [[ এর আগেও বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামি ও ছাত্রসংগঠন ইসলামি ছাত্রশিবির মিসরের জালিম শাসক জেনারেল আবদেল ফাত্তাহ আল সিসির জুলুম ও অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ জানিয়েছিল। ইহুদি মদদপুষ্ট সিসি মিসরের প্রথম গনতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মুহাম্মদ মুরসিকে জোরপূর্বক ক্ষমতা থেকে উৎখাত করে। জনরোষে পতিত সিসি নিজের ক্ষমতাকে পাকাপোক্ত করতে মুসলিম ব্রাদারহুডের সদস্যদের উপর নানান নির্যাতনের ট্রিম রোলার চালাচ্ছে। ইনশাআল্লাহ এই জুলুমের শেষ একদিন হবে এবং জালিম সিসি তার পাওনা ভালভাবেই বুঝে পাবে সেই অপেক্ষায় কোটি নয়ন মহান প্রভুর পানে তাকিয়ে আছে ]]

No comments

Theme images by PLAINVIEW. Powered by Blogger.