Header Ads

ঈমানদার ভাইদের প্রতি এক বোনের অনুরোধ!

সব সময় আপুদের কে নাসিহা করি, আজ ভাইয়া দের কে করবো ...
সব ভাইয়াদের কে না,শুধু প্র‍্যাক্টিসিং ভাইয়াদের কে ...
আগেই বলে দেই,আমি লজ্জিত এভাবে লিখতে হচ্ছে বলে !

এরকম কিছু লিখবো কখনো ভাবিনি,এমন একটা টপিকে লিখার জন্য অনুরোধ এসেছে তাই একটু ভেবে লিখা শুরু করলাম ...

আপনারা যারা দাড়ি রাখেন, পাঞ্জাবি টুপি পরেন,মাদ্রাসার ছাত্র, দ্বীনি অনেক কিছু লিখেন তাদের কে বলছি, দিন দিন ফেতনা হয়ে যাচ্ছেন প্র‍্যাক্টিসিং আপু দের সমাজে ...

আপনাদের পর্দা করতে হয়না ঠিক আছে, নজর ও বাঁচিয়ে চলেন তাও ঠিক আছে কিন্তু নিজেদের পিক আপলোড করে অনেক দ্বীনি বোনকেই ফেতনায় ফেলছেন আপনার অজান্তেই !
আপনাকে কেউ একজন পছন্দ করছে এটা ভাবতে আপনার যে ভাল লাগাটা কাজ করছে তা মূলত শয়তানের তরফ থেকে ...

আলহামদুলিল্লাহ্‌  ইদানিং দলে দলে অনেক আপুরাই ইসলাম প্র‍্যাক্টিস শুরু করেছেন, সবার আগে তারা পর্দা টা কে মজবুত করে ধরেন, পরিবারে অনেক যুদ্ধ করেও তারা অটল থাকেন, পরিবারের লোক জন তাদের নিয়ে পেরেশান থাকেন, সন্দিহান হয়ে পরেন,মেয়ে আবার জংগী হয়ে গেলো কিনা ভেবে !
তখন চান খুব জলদি এক ডাক্তার ইঞ্জিনিয়ার বা ইউরোপ বাসি দেখে মেয়েকে বিয়ে দিতে,আর এদিকে মেয়ে চান একজন হুজুর স্বামী,যিনি দ্বীনের খেদমতে থাকবেন, যিনি তাকে পানি মেরে তাহাজ্জুদের সময় জাগিয়ে দিবেন !

এহেন পরিস্থিতিতে সে বোন খুবই বিপদে পরেন, না তার দ্বীনি জ্ঞান থাকে বেশি না তার এমন কপাল থাকে যে দ্বীনদার পাত্র মা বাবাই পছন্দ করে দিবেন ...

সেই সময়েই শয়তান তাকে আপনাদের প্রতি দুর্বল করে দেয় ! তার অতো দ্বীনের বুঝ না থাকায় সে আপনাকে নক করবে, বিভিন্ন প্রশ্ন করবে,আপনি আপনার দাওয়াতের কাজ অনুযায়ী উত্তর দিবেন,শয়তান তখন ঠোট বাঁকিয়ে হাসবে ...

আমি আবারো বলি,নতুন দ্বীনে আসা মেয়েরা যেমন সবার আগে লেবাস চেঞ্জ করে, ভ্রু প্লাক করা বাদ দেয় সেরকম সবার আগে ছেলেদের মানে আপনাদের দাড়ি ওয়ালা নুরানি মুখ খানায় আকৃষ্ট হয়, আপনার সাদা পাঞ্জাবি, টুপি বা পাগড়ির প্রেমে পরে ... আপনার লিখা তাকে একটা ঘোরের মাঝে ফেলে দেয় ...
শয়তান এই সুযোগ গুলো নিয়ে তাকে ক্রমশ আপনার ইনবক্সে নিয়ে থুবড়ে ফেলে ...  নিজের নফস কে সে এতো কন্ট্রোল করতে পারে না যে !

তাই আমার অনুরোধ আপনাদের কাছে,  আপনাদের হয়ত নফস কন্ট্রোলে থাকে, কিন্তু এইসব বেবুঝ নতুন প্র‍্যাক্টিসিং আপু দের উপর একটু রহম করুন, নিজের পিক আইডি থেকে সরিয়ে ফেলুন, আপনার লিস্ট থেকেও আপু দের রিমুভ দিন,ফলোও করে রাখতে বলুন,পাব্লিক কমেন্ট অফ রাখুন,বা অন রাখলেও আপুদের কমেন্টের রিপ্লাই দেওয়া থেকে বিরত থাকুন, বেশি ইনবক্স করলে অনেক গুলো শুধু মাত্র আপুদের মাসালা মাসায়েলের গ্রুপ আছে সেখানে পাঠিয়ে দিবেন ...
আসলে কি শুধু লেখা দেখে আকৃষ্ট হলেও একটু সন্দেহে থাকে আপনার বয়স বা  স্ট্যাটাস নিয়ে,আপনি ম্যারিড নাকি না সেটা অজানা থাকে,তার বড় না ছোট সেটা অজানা থাকে,তাই সে শয়তান কে প্রশ্রয় দিতে একটু ইতস্তত করে ...
কিন্তু ছবি টা দেখলে তার মনে দোলা দিয়ে উঠে,আপনার দাড়ি, পাগড়ি, বাবরি চুল, সাদা লিবাস ! আহা !

আশা করি আমার কন্সেপ্ট ক্লিয়ার ... (:

এক আপু আমাকে ইনবক্সে জানালেন ফুলানের সাথে উনার বিয়ের ঘটকালী করার জন্য ... আমি বললাম আপু মাফ করবেন,এইসব ঘটকালী তে আমি নাই।
ততক্ষণে উনি আইডি লিনক টা দিলেন ... নাম টা দেখে চমকে উঠলাম !
কারন উনার লেখা আমিও ফলোও করি,বেশ চমৎকার লিখেন মা শা আল্লাহ ...
যেয়ে দেখি উনারো পিক দেওয়া ...
আপু কে বললাম,আপু উনাকে চিনেন? আপু বললেন, না চিনিনা।
বললাম কথা বার্তা হয়েছে? বললেন না আপু লজ্জা পাচ্ছি খুব তাই আপনাকে দিয়ে বলাতে চাইলাম,আপনি তো অনেক জানেন বুঝেন অনেক লিখেন,হয়ত আপনি বললে শুনবে আপনার কথা ...
জিগেস করলাম চিনেন না জানেন না আপনার ছোটও তো হতে পারে, এতো ভাল্লাগলো কেমনে?
বললেন, আপু উনার লেখা অনেকদিন থেকে ফলোও করি, উনার পিক ও দেখেছি, ইদানীং উনি বেশ কয়েকবার বিয়ে করবেন বলে পোস্ট দিয়েছেন,তখন খেয়াল করলাম উনাকে আমার ভাল লাগে ...

বুঝলেন তো মুহতারাম হুজুর ভাইয়েরা ? আপনাদের কেমন কেমন এক্টিভিটিস আপুদের কে ফেতনায় ফেলে ?

হুজুর হয়ে পিক দেওয়া, কেঁদে কেঁদে বউহীন জীবনের কথা লিখা মানায় না কিন্তু,বউ তো আম্মা আপুরা খুঁজে দিবে,ফেসবুক থেকে তো কাউকে পছন্দ করে বিয়ে করবেন না, তাইলে কেন এমন পোস্ট ?   🐸 (আফওয়ান,এই প্যারা টা মনে হয় একটু বেশিই বলে ফেলেছি 👀 )

দুঃখিত মনে কষ্ট দিয়ে ফেললে, শুধু বুঝাতে চাচ্ছি শয়তান যেন কোন চান্স না পায় ...

দ্বীন দার আপু ভাইয়াদের কে আল্লাহ উত্তম দ্বীনদার উত্তমঅর্ধেক মিলিয়ে দেন জলদি জলদি দুয়া করি।



#Zain

No comments

Theme images by PLAINVIEW. Powered by Blogger.