তুর্কি ও কাতারের কৌশলগত সম্পর্কের নেপথ্যে



তুর্কি রাষ্ট্রপতি রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান গত নভেম্বরে কাতারে তুরস্ক-কাতার সুপ্রিম স্ট্র্যাটেজিক কমিটির তৃতীয় বৈঠকে যোগদানের জন্য কাতার পৌঁছেছেন।

কাতারের সাথে তুরস্কের কি কি সম্পর্ক রয়েছে তা নিয়েই আমার এই আর্টিকেলটি লিখা।

সামরিক সম্পর্ক
*গত ৭ জুন একটি অসাধারণ অধিবেশনে উপসাগরীয় সঙ্কটের শুরু হওয়ার দুই দিন পর, তুরস্কের পার্লামেন্টের দুইটি চুক্তির অনুমোদন দেয় যার ফলে তুর্কি সেনারা কাতারে তৎপর হয় এবং আরেকটি সামরিক প্রশিক্ষণের সহযোগিতায় দু'দেশের মধ্যে একটি চুক্তি অনুমোদন করে।

*চুক্তির উদ্দেশ্য হচ্ছে কাতারের প্রতিরক্ষা সহযোগিতা জোরদার করা, "জঙ্গি-সন্ত্রাস" দমন এবং এ অঞ্চলের নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখা।

*পাঁচটি সাঁজোয়া যানবাহন এবং ২৩ জন তুর্কি সামরিক বাহিনীর সদস্য দোহায় গত ১৮ জুন পৌঁছেছিল এবং তারা সৈন্য সংখ্যা ৩০০০ পর্যন্ত বাড়ানোর পরিকল্পনা করেছিল এবং উপসাগরীয় দেশটিতে একটি সামরিক ব্রিগেডও রাখা হবে।

*২০১৬ সালে তুরস্কের অভ্যুত্থানের প্রচেষ্টায় কাতার দ্রুত তার সরকারকে সমর্থন প্রদান করে এবং কাতারের তুর্কি রাষ্ট্রদূত দ্বারা উল্লিখিত হয় "শেখ তামিম বিন হামাদ আল থানি প্রথম নেতা হিসেবে রাষ্ট্রপতি এরদোগানকে এবং তুরস্কের জনগন ও তুর্কি সরকারকে সমর্থন করে।




তুরস্ক কাতারের ভিতর দিয়ে নিজের স্বার্থ রক্ষা করছে অন্যের (কাতারের) পক্ষ থেকে পক্ষপাতদুষ্ট হওয়ার পরিবর্তে। এবং আঙ্কারা চায় এ অঞ্চলে স্থিতিশীলতা ধরে রাখতেঅতএব, তুরস্ক কাতারের মতো সৌদি আরবে আক্রমণের বিরুদ্ধে হবে’


খাদ্য নিরাপত্তা
*যখন উপসাগরীয় সঙ্কট বিস্ফোরিত হয়, এবং সৌদি আরব কাতারের একমাত্র ভূখণ্ডের সীমান্ত বন্ধ করে দিয়েছিল এবং অনেক গুরুত্বপূর্ণ আমদানী রোটগুলো বন্ধ করে দিয়েছিল যেগুলো দিয়ে কাতারে মৌলিক খাদ্য সরবরাহসহ অন্যান্য খাদ্যসামগ্রী প্রবেশ করত।সম্ভাব্য খাদ্য ঘাটতি এড়াতে, অবরোধের ৪৮ ঘণ্টার মধ্যেই তুরস্ক থেকে দুধ, দই এবং হাঁস-মুরগির মাংসে পূর্ণ বিমান পাঠানো হয়।

*তুরস্কের এজেন এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের দ্বারা প্রকাশিত পরিসংখ্যান অনুযায়ী, অবরোধ কর্মসূচি (জুন থেকে সেপ্টেম্বর) পর্যন্ত চার মাসের মধ্যে কাতারের তুর্কি রপ্তানি বেড়েছে ৯০ শতাংশ।

*লম্বা আমদানি রুটগুলির কারণে কাতারে খাদ্য ও পানীয়ের দাম আগস্ট মাসে ৪ দশমিক ২ শতাংশ বেড়েছে। কাতারের তুর্কী রাষ্ট্রদূত ফিক্রেত ওঝের বলেছেন,  "আমরা এখানে অনেক পণ্য নিয়ে আসছি কিন্তু তুরস্ক ও কাতারের মধ্যে কোন ভূমি রুট নেই। এখন কাতার, ইরান ও তুরস্কের মধ্যে সহযোগিতা রয়েছে যা দিয়ে সেখানে একটি নতুন রুট চালু করা হবে

*কাতার একটি ৫৩০০০০ বর্গ মিটার খাদ্য সঞ্চয় এবং “হামাদ পোর্ট” এ প্রসেসিং প্রসেসে ৪৪৪ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করেছে।

*তুরস্ক আশা করছে যে, কাতারের সঙ্গে বাণিজ্য সম্পর্কের উন্নতি অবরোধকে কাটিয়ে উঠবে। "তুর্কি পণ্য খুব উচ্চ মানের। এমনকি যদি নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হয় তারপরেও পণ্যগুলি স্থায়ীভাবে রাখা হবে
*জাতীয় খাদ্য নিরাপত্তা কর্মসূচির অংশ হিসেবে, কাতার ২০২৫ সালের মধ্যে ৭০ শতাংশ খাবারের চাহিদা মেটাতে লক্ষ্য রাখছে।

কাতারি বিনিয়োগ
*এমনকি অবরোধের আগেও, তুর্কি অর্থনীতিতে কাতারের অনেক বিশ্বাস ছিল। মে মাসে কাতারের চেম্বার অব কমার্সের ভাইস চেয়ারম্যান মোহামেদ বিন তুয়ার বলেন, "এখানে তুরস্কের ১১ দশমিক ৬ বিলিয়ন ডলারের ক্রেতা প্রকল্প রয়েছে, যা বেশির ভাগ ফিফা বিশ্বকাপ ২0২২ এর প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে।"

*তুরস্কের কাতারের বিনিয়োগের পরিমাণ ২0 বিলিয়ন ডলারেরও বেশি যা কিনা তুরস্কের যে কোন দেশের বিনিয়োগের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ মান
*তুরস্কের গণমাধ্যম থেকে জানা যায়, কাতার ২০১৮ সালের মধ্যে তুরস্কে আরও ১৯ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে, যা ৬৫০ মিলিয়ন ডলার কৃষি ও প্রাণিসম্পদে কাজে লাগানো হবে।

*কাতারের সাথে তার আকর্ষণীয় বিনিয়োগের সুবিধার পাশাপাশি তার দৃঢ় সম্পর্কের কারণে  কাতার চেম্বার কাতারি ব্যবসায়ীদের তুরস্কের বিনিয়োগে উৎসাহিত করে।

*কাতারের চেম্বারের মতে, অ-তেল রপ্তানির জন্য কাতারের শীর্ষ গ্রাহক তুরস্ক

“কাতার-তুর্কী সম্পর্কগুলি স্বতন্ত্র এবং অন্যান্য     দেশের জন্য একটি আদর্শ হিসাবে কাজ করুক সেই প্রত্যাশা”
মোঃ ইনজামাম উল ইসলাম
 ডিপার্টমেন্ট অব ইংলিশ ল্যাংগুয়েজ এন্ড লিটারেচার-IIUC

3 comments:

Theme images by PLAINVIEW. Powered by Blogger.